১ কেজি সয়াবিন তেলের দাম কত ২০২৪

বর্তমান বাজারে কয়েক ধরনের তেল পাওয়া যায়। প্রকার ভেদে তেলের দাম কম বেশি হয়ে থাকে। প্রতি লিটার ভোজ্য তেল এর দাম আগের থেকে কিছুটা কমেছে। বর্তমানে ১ লিটার সয়াবিন তেল (লুজ) ১৫০ থেকে ১৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া বতলজাত প্রতি লিটার সয়াবিন তেলের মূল্য ১৭০ থেকে ১৮০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। কিছু দিন আগে ১৬৭ থেকে ১৭৫ টাকায় লুজ সয়াবিন বিক্রি করতো। যা আজকের বাজারে ৫ থেকে ১০ টাকা মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে।

একই ভাবে ডিজেল ও কেরোসিনের দাম ৪২.৫ শতাংশ বেড়ে প্রতি লিটার ১১৪ টাকা হয়েছে। পেট্রোলের দাম ৫১.১৬ শতাংশ মূল্য বৃদ্ধি পেয়ে লিটার প্রতি ১৩০ টাকা হারে বিক্রি করা হচ্ছে। ১ লিটার অকটেনের দাম ১৩৫ টাকা হয়েছে। জ্বালানি তেলের দাম বাড়তি হওয়ার কারণে যানবাহন খরচ বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে জ্বালানি তেলের মূল্য কিছু কমানো হয়েছে। নিচের প্রতিবেদনে ভোজ্য ও জ্বালানি তেলের বাজার নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

আজকের সয়াবিন তেলের দাম কত ২০২৪

১ লিটার লুজ সয়াবিন তেলের দাম ১৮৯ টাকা। আগে এর মূল্য ছিলো ১৯৯ টাকা। এক মাস পূর্বে দাম ছিলো ১৯০ থেকে ২০০ টাকা। যা এক বছর পূর্বে ছিলো ১৪০ থেকে ১৪৫ টাকা। ১ লিটার সয়াবিন তেলে (বোতল) মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে ৩ টাকা। প্রতি লিটার সয়াবিন বোতল মূল্য ১৯০ টাকা। যা ১ মাস আগে ছিলো ১৮৫ টাকা। এক মাসে তেলের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে ৫ টাকা। নিচে আরও কিছু লুজ ও বোতল সয়াবিনের মূল্য দেওয়া আছে। আজকের তেলের বাজার দর।

  • সয়াবিন তেল (বোতল) ২ লিটার  ৩৮০ থেকে ৩৯০ টাকা।
  • সয়াবিন তেল (বোতল) ৫ লিটার ৮৯০ থেকে ৯৬০ টাকা।
  • পাম অয়েল (লুজ) প্রতি লিটার ১৬০ থেকে ১৭০ টাকা।
  • পাম অয়েল সুপার প্রতি লিটার ১৭০ থেকে ১৮০ টাকা।

আজকের পাম তেলের দাম কত

পাম তেল হচ্ছে সয়াবিন তেলের মতোই। সয়াবিনের থেকে পাম তেলের দাম অনেক কম। এই তেল স্থাস্থের জন্য ক্ষতিকর। এক লিটার পাম তেলের ১২৫ টাকা। ৫ লিটার পাম তেলের দাম ৬২৫ টাকা। পাম তেলের দাম ৮ টাকা কমেছে। এদিকে সয়াবিনের দাম বেড়েছে। এক মাস আগের পাম তেলের দাম ছিলো ১৪৫ টাকা। ১ মাসের মধ্যে পাম তেলের দাম ২০ টাকা। ৫ কেজিতে দাম হ্রাস পেয়েছে ১০০ টাকা।

আজকের তেলের বাজার দর

বর্তমান সময়ে বাজারে তেলের দাম স্থির অবস্থায় রয়েছে। যদিও আগের থেকে কিছু অংশ তেলের মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। বাংলাদেশের তৈরি বা উৎপত্তি জনিত তেলের মাধ্যমে সম্পূর্ণ চাহিদা মেটানো সম্ভব হয় না। যার ফলে প্রতি মাসেই বিভিন্ন দেশ থেকে অতিরক্ত তেল আমদানি করতে হয়। বর্তমানে বিভিন্ন জিনিসের দাম বারা পাশা- পাশী ডোলার রেট বৃদ্ধি পেয়েছে। যার ফলে আমদানিকৃত ভোজ্য ও জ্বালানি তেল অতিরিক্ত দাম দিয়ে দেশে আমদানি করতে হয়। এর ফলে তেলের দাম ব্রিধি করা হয়েছে।

কেরোসিন তেলের দাম কত ২০২৪

জ্বালানি কাজের জন্য কেরোসিনের চাহিদা অনেক। কেরোসিনের দাম ৪২.৫ শতাংশ বেড়েছে। প্রতি লিটার ১১৪ টাকা করে কেরোসিন তেল বিক্রি করা হচ্ছে। ৫ লিটার কেরোসিনের দাম ৫৭০ টাকা। কিছু দিন আগের কেরোসিনের লিটার প্রতি দাম ছিলো ১০৫ টাকা। বর্তমান বাজারে ৯ টাকা প্রতি লিটারে দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। এবং ৫ লিটারে বেড়েছে ৪৫ টাকা। তবে যেকোম্নো সম এই কেরোসিনের দাম বেড়ে যেতে পারে।

ডিজেল তেলের দাম কত

বিভিন্ন ইঞ্জিন চালিত যানবাহনে ডিজেল ব্যবহার করা হয়। আগের তুলনায় বাজারে ব্যাপক হারে এই ডিজেলের দাম বেড়েছে। যার কারণে যানবাহনের যাতায়াত খরচ বাড়ানো হয়েছে। বাংলাদেশে জ্বালানি তেলের অনেকটা ঘাটতি রয়েছে। বিদেশ থেকে জ্বালানি তেল সংগ্রহ করা হয়। ডলারের রেত বেড়ে যাওয়ার সাথে সাথে বাংলাদেশের ডিজেলের দাম বাড়িয়ে দেওয়া হয়ে।

বর্তমানে ডিজেলের দাম ৫ টাকা কমানো হয়েছে। দাম বৃদ্ধি পাওয়ার প্রায় ১ মাসের মাথায় আজকে ডিজেলের দাম কমানো হয়েছে। এখন  ১২০ টাকা লিটারে ডিজেল বিক্রি করা হচ্ছে। ৫ লিটার ডিজেলের বর্তমান মূল্য ৬০০ টাকা। ১ লিটার অকটেনের দাম   ১৪০ টাকা। ৫ লিটার অকটেনের দাম ৭০০ টাকা। এবং প্রতি লিটার পেট্রোল  ১২৫ টাকায়।

জ্বালানি তেলের দাম ২০২৪

জ্বালানি তেলের মধ্যে উল্লেখ যোগ কেরোসিন, ডিজেল, অকটেন এবং পেট্রোল। আন্তর্জাতিক বাজারে  জ্বালানি তেলের দাম কমে গেছে। প্রতি ব্যারেল ব্রেন্ট ক্রুড তেলের দাম ৯০ ডলারের নিচে হয়েছে। আগের বিশ্ব বাজারে ১ ব্যারেল ব্রেন্ট ক্রুডের দাম ছিল ৮৮ দশমিক শূন্য ৩ ডলার। এবং ডব্লিউটিআই ক্রুডের প্রতি ব্যারেলের দাম ছিল ৮১ ডলার। নিচে বাংলাদেশ বাজারের জ্বালানি তেলের নির্ধারিত মূল্য তালিকা দেওয়া হলো।

পণ্যের নাম      স্থানীয় বিক্রয় মূল্য
ডিজেল   ১০৯.০০ (টাকা/লিটার)
কেরোসিন   ১০৯.০০ (টাকা/লিটার)
অকটেন   ১৩০.০০ (টাকা/লিটার)
পেট্রোল   ১২৫.০০ (টাকা/লিটার)

সরিষার তেলের দাম

বাজারে ১ লিটার উন্নতমানের সরিষার তেলের দাম ৩৪০-৩৫০ টাকা। বিভিন্ন কোম্পানির সরিষা তেল পাওয়া যায়। ১ কেজি খোলা সরিষার তেলের মূল্য ২৭০-২৮০ টাকা। ৫ কেজির বোতল জাত সরিষা তেলের মূল্য ১৭৫০ টাকা। খোলা সরিষার তেলের ৫ কেজি মূল্য  ১৪০০ টাকা সর্বচ্চ। স্থানীয়ভাবে মেশিনে ভাঙানো ১ কেজি ২৬০ থেকে ২৮০ টাকা। ঘানি ভাঙানো তেলর দাডা ২৮০ থেকে ৩২০ টাকদ কেজিতে। ১ বছর আগে সরিষার তেলের মূল্য ছিল ১৮০ টাকা। অনলানে কিছুটা কম দাম সরিষার তেল কিনতে পারবেন।

১ কেজি সরিষার তেলের দাম কত

বাংলাদেশে ৩ প্রকার সরিষা থেকে থেকে তেল উৎপন্ন করা হয়। ১ কেজি সরিষার তেলের দাম ১৯০-২২০ টাকা। অরজিনাল ১ লিটার সরিষার তেলের দাম ৩৪০-৩৫০ টাকা। ৫ লিটারের  সূর্যমুখী তেলের দাম ব্র্যান্ড ভেদে ১ হাজার ৬০০ টাকা থেকে ১ হাজার ৮৭৫ টাকা। রাধুনী খাটি সরিষার তেলের বর্তমান বাজার মূল্য ২৫০ মিঃলিঃ – ৬৫ টাকা। এছাড়াও আরও বিভিন্ন সরিষার তেল দোকানে কিনতে পাওয়া যায়।

শেষ কথা

প্রতিনিয়ত তেলের বাজার কম-বেশি হচ্ছে। তাই আমার দেওয়া দাম অনুযায়ী সব সময় তেল কিনতে পাওয়া যাবে না। স্থান ভেদে বাংলাদেশে তেলের দাম ভিন্ন ভিন্ন হয়ে থাকে। এই পোস্টে তেলের বাজার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য শেয়ার করেছি। আশা করছি আপনারা আজকের পোস্ট থেকে আজকের তেলের বাজার দর। ১ কেজি সয়াবিন তেলের দাম কত?  ইত্যাদি জানতে পেরেছেন। বাজার দর সম্পর্কে বিভিন্ন আপডেট তথ্য এই ওয়েবসাইটে প্রতিদিন শেয়ার করে থাকি। তাই বাজার দর বা আজকের বাজার সম্পর্কে সর্বশেষ খবর জানতে এই ওয়েবসাইটের সাথেই থাকবেন। ধন্যবাদ।